1. shahjahanbiswas74@gmail.com : Shahjahan Biswas : Shahjahan Biswas
  2. ssexpressit@gmail.com : sonarbanglanews :
রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:০৫ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
চলমান তাপপ্রবাহের কারণে স্কুল-কলেজ সাত দিন বন্ধ ঘোষণা দুবাইয়ে বন্যা:কৃত্রিম বৃষ্টিপাত, নাকি আবহাওয়া পরিবর্তন? তীব্র তাপদাহে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আরও ৭ দিন ছুটি ঘোষণা পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে একসঙ্গে ৬ সন্তানের জন্ম, সবাই সুস্থ দেশীয় খেলাকেও সমান সুযোগ দিতে হবে: প্রধানমন্ত্রী কৃষক লীগ নেতাদেরকে গণভবনে উৎপাদিত শাক-সবজি উপহার দিলেন প্রধানমন্ত্রী প্রচণ্ড গরমের কারণে সারাদেশে ৩ দিনের হিট অ্যালার্ট জারি করেছে আবহাওয়া অফিস সারাদেশে তীব্র গরমে বজ্রসহ বৃষ্টির পূর্বাভাস হরিরামপুরে উপজেলা নির্বাচনে প্রথমবারের মতো ভোট যুদ্ধে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা শিবালয়ে দিনব্যাপী প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত

বিএনপি শোষণ- নির্যাতন ছাড়া দেশকে কিছুই দিতে পারেনি: প্রধানমন্ত্রী

  • সর্বশেষ আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ১৪৮ বার পড়েছেন

অনলাইন ডেস্ক: বিএনপি শোষণ-নির্যাতন ছাড়া দেশকে আর কিছুই দিতে পারেনি বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ২০০১ থেকে ২০০৮ পর্যন্ত দেশের মানুষের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৫ ডিসেম্বর) রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে যুব মহিলা লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব‌্য রাখতে গিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলেই কেবল দেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন হয়। এটাই তার দলের বৈশিষ্ট্য। এ সময় নারীদের উন্নয়নে বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। যুব মহিলা লীগকে বিএনপির সন্ত্রাসী কার্যক্রমের বিষয়ে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজকে বিএনপি নির্বাচন নিয়ে কথা বলে। ২০০৮ সালের নির্বাচন নিয়ে তো কথা হয়নি। জাতীয়-আন্তর্জাতিকভাবে কেউ তো সে নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন তোলেনি। ৩০০ সিটের নির্বাচনে বিএনপি কয়টা সিট পেয়েছে? মাত্র ৩০টা সিট। জাতীয় পার্টি পায় ২৭টা সিট। জাতীয় পার্টি আর কয়েকটা সিট পেলে খালেদা জিয়া বিরোধীদলীয় নেতা হতে পারতেন না। তাহলে এত লাফালাফি কেন? ২০০৮ এর নির্বাচনেই তো এই ফলাফল।

শেখ হাসিনা বলেন, যখন আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকে, তখন দেশের মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন হয়। আওয়ামী লীগই দেশের মানুষকে কিছু দিতে পারে। বিএনপিসহ যারাই আগে ক্ষমতায় ছিল, দেশের মানুষকে কিছুই দিতে পারেনি। ২১ বছর এ দেশের মানুষ নির্যাতিত শোষিত ও বঞ্চিত হয়েছে।

এর আগে সকাল থেকেই সম্মেলনে যোগ দিতে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জড়ো হন সারাদেশ থেকে আসা যুব মহিলা লীগের কাউন্সিলররা। যোগ দেন বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মীরাও। সবশেষ ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত হয় যুব মহিলা লীগের সম্মেলন। প্রায় ২০ বছর ধরে সংগঠনটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন সভাপতি নাজমা আক্তার ও সাধারণ সম্পাদক অপু উকিল।

খবরটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন :