1. shahjahanbiswas74@gmail.com : Shahjahan Biswas : Shahjahan Biswas
  2. ssexpressit@gmail.com : sonarbanglanews :
মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:০৪ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
মানিকগঞ্জ- ঝিটকা  আঞ্চলিক সড়কে ট্রাক বিকল, যান চলাচল বন্ধ, ভোগান্তিতে স্থানীয়রা গরমের বিপদ হিট স্ট্রোক, ঝুঁকি এড়াতে করণীয় তীব্র তাপদাহে পুড়ছে দেশ:পানির জন্য হাহাকার, শঙ্কা কৃষিতে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে মানিকগঞ্জে ৩ লাখ টাকার হেরোইনসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার ঢাকা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি রাশেদ, সম্পাদক জাহিদ উপজেলা ভোটের প্রথম ধাপে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন আজ দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থী ২০৫৫ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: মানিকগঞ্জের দৌলতপুরে ১৪ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে বাড়তি ভাড়া আদায়সহ যাত্রী হয়রানির অভিযোগ

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে কি ভাবছে তারুণ সমাজ ?

  • সর্বশেষ আপডেট : শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৮৩ বার পড়েছেন

খাব্বাব হোসেন ত্বহা: জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রতি পাঁচ বছর পর একবার আসে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মানুষের মনে বিভিন্ন আশা প্রত্যাশা ও উত্তেজনা বিরাজ করে। রাজনৈতিকভাবে প্রতিটি স্বাধীন মানুষই চায় নিজের সিদ্ধান্তকে জাতীয় পর্যায়ে গুরুত্ববহ করে তুলতে।

আগামী বছরের ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশের দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। আসন্ন এই নির্বাচনকে ঘিরে উৎকণ্ঠার যেনো শেষ নেই।
শুধু দেশেই নয়, এই উত্তেজনা দেশ পেরীয়ে দেশের বাইরের বিদেশী বিভিন্ন মহলেও সমান তালে ছড়িয়ে পড়েছে। নির্বাচনকে ঘিরে জনমনে তৈরী হচ্ছে বিভিন্ন প্রশ্ন।
কোন দল করবে আগামীর সরকার গঠন? কে হবে প্রধানমন্ত্রী? বিএনপি ও সমমনা দল গুলো কি ক্ষমতায় আসতে পারবে? আগামীর সরকার কর্মসংস্থানের জন্য কতটুকু কার্যকরী ভূমিকা রাখবে? দেশের অবকাঠামোগত উন্নয়ন, শিক্ষার প্রসার ও বাংলাদেশকে উন্নত করতে কতটুকু ভুমিকা রাখবে ইত্যাদি হাজারো প্রশ্নের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামীর নির্বাচন।

কেউ কেউ আবার হিসেব কষছেন, বিগত বছর গুলোতে বর্তমান সরকারের অবদান ও উন্নয়নের চিত্র নিয়ে।

বিশেষ করে তরুন সমাজের একটি বড় অংশের যেনো দেশের রাজনীতি ও নির্বাচনী পরিস্থিতি নিয়ে ভাবনার কমতি নেই। এবারের নির্বাচনে অন্যান্য ভোটারের পাশাপাশি তরুণ ভোটারের প্রভাব থাকবে গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতির মূলেও তরুণ সমাজের ভূমিকা সর্বাধিক। এবার দেশে মোট ভোটার প্রায় ১০ কোটি ৪৪ লাখ। এরমধ্যে তরুণ ভোটারের সংখ্যা ৪ কোটি ২০ লাখ, যাদের বয়স প্রায় ১৮-৩৫ বছরের মধ্যে।

আসন্ন নির্বাচনে তরুণ সমাজের ভাবনা, পছন্দ-অপছন্দ, সমর্থন কিংবা বিরোধিতা ভোটের ফলাফল নির্ধারণ করে দিতে পারে। আমরা আমাদের আজকের এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে তুলে ধরতে চাই, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে কি ভাবছে তারুণ সমাজ সেই বিষয়ে।
ভোট দেয়ার যোগ্যতা অর্জনকারী তরুন সমাজ নির্বাচন নিয়ে যা ভাবছে তা নিচে তুলে ধরা হলো।

নির্বাচন সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ অংশগ্রহণ মূলক হওয়া উচিত: বাংলাদেশ একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র। একটি গনতান্ত্রিক রাষ্ট্র সকল সাধারণ জনগণের অংশগ্রহণের ভিত্তিতে পরিচালিত হয়। আগামী ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হতে যাচ্ছে। যেখানে অনেকগুলো দলই অংশগ্রহণ না করার ঘোষণা দিয়েছে। যেটি একটি গনতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে প্রশ্নবিদ্ধ করবে। এই সুযোগে যাতে বহিঃবিশ্ব এখানে হস্তক্ষেপ করতে না পারে। আমাদের নিজেদের স্বকিয়তা ধরে রাখার জন্য আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও অংশগ্রহণ মূলক হওয়া উচিত। সকল রাজনৈতিক মতবিরোধ দূর করে  সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের আয়োজন করা উচিত যার মাধ্যমে যারা সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করবে তারা সরকার গঠন করবে এবং দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ধর্মীয় আবেগের অপব্যবহার না করানির্বাচন মানুষের রাজনৈতিক অধিকারের সবচেয়ে বড় প্রয়োগক্ষেত্র। তরুণদের রাজনৈতিক চিন্তা বিকাশের সুযোগস্থল। আগামী সংসদ নির্বাচন বাংলাদেশের রাজনৈতিক চিত্রপটে নতুন মাত্রা যোগ করবে। বর্তমানে বাংলাদেশ আছে উন্নয়নের মহাসড়কে। এই নির্বাচনের ঘটনাপ্রবাহের জন্য বাংলাদেশের সার্বিক উন্নয়নে যেনো কোনো বিরুপ প্রভাব না পরে সেদিকে লক্ষ্য রাখা জরুরি। খুব শিঘ্রই প্রচারনা শুরু হবে। অনলাইন প্রচারের দিকে বিশেষভাবে দায়িত্বশীল হতে হবে, কারণ অনলাইনে খুব সহজেই উস্কানীমূলক তথ্য বিস্তার সম্ভব। তাই প্রশাসনের সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে যেন ধর্মীয় আবেগের অপব্যবহার কোনোভাবেই না হয়। কেননা এই সিদ্ধান্তের উপর আমাদের আগামী পাঁচ বছরের জীবনমান নির্ভর করবে। ধর্মীও অনুভুতিতে আঘাত করে ভোট চাওয়া বন্ধ করতে হবে।

তরুণ বান্ধব সরকার চায় শিক্ষার্থীরাদেশ ডিজিটাল হচ্ছে। উন্নত দেশ গুলোর সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশের তরুন সমাজ ঝুকেছে ফ্রিল্যান্সিং সহ বিভিন্ন ডিজিটাল কর্মকান্ডে। বিদেশী বিভিন্ন মহলে দেশকে করছে গৌরবান্বিত। তরুনরা চায়, নির্বাচিত সরকার যেনো তরুনদের উন্নয়নে বিশেষ ভুমিকা রাখে। তরুনদের ইতিবাচক কর্মকান্ডে সরকারের সহায়তাসহ উৎসাহমুলক বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা প্রত্যাশা করছে তরুন সমাজ।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত সরকার চায় তরুনরা: তরুন সমাজের বড় একটি অংশের আবেগের জায়গা ঘিরে রেখেছে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ। মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের ত্যাগ ও দেশের জন্য ভালোবাসা তাদের মনে দেশপ্রেম জাগায়। তাই তরুন সমাজ এমন এক সরকার চায় যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে লালন করে ও তাদের সকল অনুসারী দেশপ্রেমে উজ্জীবিত।

উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার সরকার চায় তরুনরা: বাংলাদেশ উন্নত হচ্ছে। বর্তমান বাংলাদেশ মধ্যমায়ের দেশে উন্নীত করেছে বর্তমান ক্ষমতাসীন সরকার। দেশের অবকাঠামোগত উন্নয়ন, বিদেশী মহলে দেশকে গৌরবান্বিত করেছে। তাই তরুন সমাজ চায়, উন্নয়নের এই ধারা যেনো অব্যাহত থাকে এবং বাংলাদেশকে বিশ্বের উন্নত দেশ গুলোর তালিকায় নিয়ে যাওয়া হয়। যে সরকার দেশের উন্নয়ন ও সার্বিক উন্নতি বজায় রাখবে তাকেই ভোট দিতে চায় তরুন সমাজ।

সর্বপড়ি, বাংলাদেশের আগামীর নির্বাচন নিয়ে দেশের বিভিন্নস্তরের জনগনের পাশাপাশি তরুণ সমাজের উত্তেজনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তরুন সমাজ চায় একটি সুন্দর সুসষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন যা দিয়ে গঠনকৃত সরকার দেশ ও জনগনের কল্যানে আগামী ৫ বছর নিয়োজিত থাকবে। দেশের সার্বিক উন্নতি করবে ও তরুন সমাজের দিকে বিশেষ নজর দিবে।

খবরটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন :